২০১৮ সালের জুনের মধ্যে সারাদেশে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ – নসরুল হামিদ

0
41

২০১৮ সালের জুনের মধ্যে সারা দেশে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। তিনি আরো বলেন গত দুই বছরে ৭৩ লাখ নতুন গ্রাহককে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়েছে সরকার। যা কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২০ শতাংশ বেশি ।  গতকাল সকালে রাজধানীর খিলক্ষেতে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের (আরইবি) প্রধান কার্যালয়ে জেনারেল ম্যানেজার সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশে এখন মাথাপিছু বিদ্যুতের ব্যবহার হচ্ছে প্রায় ৪০০ কিলোওয়াট আওয়ার। আমরা যখন উন্নত বিশ্বে প্রবেশ করব তখন আমাদের মাথাপিছু প্রায় ১০ হাজার কিলোওয়াট আওয়ার বিদ্যুতের প্রয়োজন হবে। এর বেশির ভাগই আরইবির গ্রাহক হবে। সেভাবেই আরইবিকে প্রস্তুতি নিতে হবে।

সম্মেলনে স্বাগত বক্তব্যে আরইবির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মঈন উদ্দিন আহমেদ বলেন, ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর থেকে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় আরইবির ৮৮০ কোটি টাকা লোকসান হয়েছে। এই ঘাটতি মেটাতে গ্রাহকের জামানত, কর্মচারীদের কল্যাণ তহবিল ভেঙে বেতন-ভাতা প্রদান করা হচ্ছে। আরইবির চেয়ারম্যানের এমন বক্তব্যের জবাবে নসরুল হামিদ বলেন, আরইবি গঠন করাই হয়েছে জনগণকে সেবা প্রদানের জন্য। মুনাফার বিষয়টি মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলতে হবে। ’অনুষ্ঠানে বিদ্যুত্সচিব ড. আহমদ কায়কাউস বলেন, ঘুষ-দুর্নীতি আগের তুলনায় কমেছে, এ কথা ঠিক। তবে সেবার মান পুরোপুরি উন্নত হয়নি। বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে লোক মারা যাচ্ছে, আমরা এর দায় এড়াতে পারি না।

প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্যের আগে নওগাঁ, ময়মনসিংহ, যশোর, সিরাজগঞ্জ, দিনাজপুর ও রাউজান পল্লী বিদ্যু সমিতির জেনারেল ম্যানেজাররা তাঁদের এলাকায় লোডশেডিং হচ্ছে বলে অভিযোগের পেক্ষিতে  প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ লোডশেডিং হচ্ছে এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বলেন, আমরা বিদ্যুতের চাহিদার যে প্রজেকশন তৈরি করেছিলাম তার চেয়ে শহরে ২০ শতাংশ আর গ্রামে ১৫ শতাংশ চাহিদা বেড়েছে। এ কারণে উত্পাদন বাড়লেও কোথাও কোথাও ঘাটতি রয়েছে। এ ছাড়া গ্যাসের ঘাটতির কারণে বর্তমানে এক হাজার ৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উত্পাদন কম হচ্ছে। তবে ২০১৮ সালের জুন নাগাদ নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ সম্ভব হবে।

 

 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here