দুই শতাধিক শিল্পী অংশ নিচ্ছেন এবারের ঢাকা ফোক ফেস্ট

নিউজ বিডিডট নেট : ২০১৫ সালে  শুরু হয়েছিল ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোক ফেস্ট। প্রথম আসরেই উৎসবটি দারুণ সাড়া ফেলে। এবার বসেছে এর ৫ম আসর। গতকাল শুরু হওয়া উৎসবে প্রধান আকর্ষণ ছিলেন ভারতের জনপ্রিয় গায়ক দালের মেহেন্দি। নব্বইর দশকের মাঝামাঝি পাঞ্জাবি ভাঙড়া গান  গেয়ে ভারতজুড়ে ঝড় তোলেন দালের মেহেন্দি। ১৯৯৫ সালে তার প্রথম অ্যালবাম ‘বোলো তা রা রা রা’ প্রায় ২০ মিলিয়ন কপি বিক্রি হয়। তিন দিনব্যাপী এ আয়োজন সন্ধ্যা ৬টা  থেকে শুরু হয়ে উৎসব চলে রাত ১২টা পর্যন্ত। বাংলাদেশসহ ছয় দেশের দুই শতাধিক শিল্পী অংশ নিচ্ছেন এবারের উৎসবে। প্রথম দিনের বিভিন্ন পরিবেশনায় আরও অংশ নেন বাংলাদেশের নৃত্যশিল্পী সামিনা হোসেন প্রেমা ও তার নৃত্যদল ভাবনা। লোকসংগীত পরিবেশন করেন বাংলাদেশের শাহ আলম সরকার ও জর্জিয়ার শেভেনেবুরেবি। উপমহাদেশের সংগীতপ্রেমীদের কাছে ভীষণ জনপ্রিয় পাকিস্তানের জুনুন। সুফি ঘরানার গান পরিবেশন করে দুই যুগের বেশি সময় ধরে  শ্রোতাদের আবিষ্ট করে রেখেছে এ ব্যান্ড দলটি। ১৯৯৭ সালে নিজেদের চতুর্থ অ্যালবাম ‘আজাদি’ দিয়ে উপমহাদেশজুড়ে ঝড় তোলে। ৩০ মিলিয়নের বেশি কপি বিক্রি হয় অ্যালবামটির। এছাড়া রাশিয়ার কারেলিয়া অঞ্চলের জনপ্রিয় ব্যান্ড দল সাত্তুমা। একই পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ২০০৩ সালে দলটি গড়া হয়। মঞ্চে নানা ধরনের ইনস্ট্রুমেন্ট বাজিয়ে শ্রোতাদের আবিষ্ট করেন সাত্তুমার সদস্যরা। সমাপনী দিনে এ দুটি দলের পরিবেশনা মঞ্চ মাতাবে। এছাড়া বাংলাদেশের কাজল দেওয়ান, চন্দনা মজুমদারের পরিবেশনা উৎসবকে রাঙিয়ে দেবে। লালনশিল্পী চন্দনা মজুমদারের জন্ম কুষ্টিয়ার গড়াই নদের পাড়ে। লালনের গান গেয়ে খ্যাতি কুড়িয়েছেন। এ ছাড়া রাধারমণ দত্ত, হাসন রাজা, শাহ আবদুল করিমসহ বিভিন্ন বাউল ও লোককবির গান করেন। ২০০৯ সালে তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। অন্যদিকে বাউলশিল্পী কাজল  দেওয়ানের জন্ম ১৯৬৮ সালে ঢাকার  কেরানীগঞ্জে। বাবা প্রখ্যাত বাউল মাতাল কবি আবদুর রাজ্জাক দেওয়ানের হাত ধরে বাউল গান শুরু করেন। প্রায় ৩০০ অডিও অ্যালবাম রয়েছে তার।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*