পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ছাত্রলীগ কর্মী নিহত

নিউজ বিডিডট নেট : পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ছাত্রলীগ কর্মী নিহত হয়েছে। নিহত কর্মীরা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদিকুর রহমান সাদিকের দেহরক্ষী ছিলেন। পুলিশের দাবি, নিহত দ্বীপ আজাদ ও সাইফুল ইসলাম সন্ত্রাসী ছিল। তাই তাদের গ্রেফতার করা হয়েছিল।

শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) মধ্যরাতে সাতক্ষীরা বাইপাস সড়কের বকচরা মোড়ে তাদের নিয়ে অভিযানে গেলে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানায়। এসময় ঘটনাস্থল থেকে দুটি বিদেশি পিস্তল ও এক রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

দ্বীপ আজাদ শহরের মুন্সিপাড়া এলাকার মইনুল ইসলামের ছেলে। আর সাইফুল ইসলাম কালিগঞ্জের সাইহাটি গ্রামের সবুর সরদারের ছেলে।

বন্দুকযুদ্ধের এই ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর ছাত্রলীগ নেতা সৈয়দ সাদিকুর রহমান সাদিক সাংবাদিকদের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ রেখেছেন। তবে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে এ বিষয়ে স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘ভাই তোদেরকে এই ভাবে হারায়ে ফেলব তা কখনো বুঝতে পারিনি। পারলে মাফ করে দিস। দুয়া করি আল্লাহ তোদের বেহেস্তবাসী করুন।’ লেখার নিচে নিহত দুইজনের ছবি দেওয়া হয়েছে। ফেসবুক জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদিকুর রহমান সাদিকের স্ট্যাটাস।

সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান দাবি করেন, দ্বীপ আজাদ ও সাইফুল ইসলাম চিহ্নিত অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী। কালিগঞ্জের এক ব্যক্তির ২৬ লাখ টাকা ছিনইতাইসহ বিভিন্ন লোককে হত্যার সঙ্গে দ্বীপ ও সাইফুল জড়িত। তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*