অবশেষে লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স লকডাউন ঘোষণা

মো: রবিউল হোসাইন সবুজ (কুমিল্লা প্রতিনিধি): কুমিল্লার লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স লকডাউন করা হয়েছে। কেবলমাত্র জরুরি বিভাগে চিকিৎসা কার্যক্রম ব্যতীত অন্যান্য সকল বিভাগের কার্যক্রম অবরুদ্ধ (লকডাউন) রাখা হয়েছে। এই হাসপাতালের মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট (ল্যাব) এর করোনা শনাক্ত ২জন হওয়ায় এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কুমিল্লা লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পৌর-শহরে ৬নং ওয়ার্ড। পশ্চিমগাঁও এলাকায় করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে মঙ্গলবার থেকে বহিরাগত ও সর্বসাধারণের প্রবেশে কঠোর সতর্কতা জারি করা হয়েছে। লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ করেনা ভাইরাস সনাক্তকরণে নমুনা সংগ্রহ এবং চিকিৎসা দিতে একটি বিশেষ দল গঠণ করা হয়। ওই দলেরই দুইজন সদস্য স্বাস্থ্যকর্মীসহ এক ব্যবসায়ী করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালের আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এজন্যে হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসক, নার্স,সহ সকল বিভাগের কর্মচারীদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দেয়। এদিকে ওই স্বাস্থ্য কর্মীর সংস্পর্শে থাকা দলের অন্যান্য সদস্য ছাড়াও হাসপাতালের প্যাথলজি বিভাগে কর্মরতদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল (কুমেক) ল্যাবে পাঠানো হয়েছে ২৪ জনের। আর রিপোর্ট আসছে ৬ জনের।বাকি ১৮ জনের রিপোর্ট আসলে বলতে পারবে আরো কেউ করোনা আক্রান্ত কিনা। এই ব্যাপারে লাকসাম উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আবদুল আলী কালের কণ্ঠকে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মানবিক দিক বিবেচনায় সর্বোচ্চ সতর্কতায় জরুরি বিভাগে রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে। তবে অন্যান্য কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*